ঘূর্ণিঝড় ইয়াস আপডেট

৮২

নিউজ ডেস্কঃ

উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ইয়াস কিছুটা উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে আরো শক্তিশালী হয়েছে। বর্তমানে ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রের ৫০ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ১১১ কিলোমিটার যা দমকা আকারে ১২৫ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃৃ্ৃ্ৃদ্ধি পাচ্ছে। এটি আজ দুপুর বা বিকেলের মধ্যেই ক্যাটাগরি:১ ক্ষমতার শক্তিশালী ঝড়ে পরিণত হতে পারে। ধারণা করা হচ্ছে এটি আগামিকাল দুপুর নাগাত ভারতের উত্তর উড়িষ্যা হতে পশ্চিমবঙ্গের মাঝামাঝি যেকোন স্থান দিয়ে উপকূল অতিক্রম করতে পারে। অর্থাৎ ঘূর্ণিঝড়ের গতিপথ পরিবর্তন না হলে এটি সরাসরি বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানার সম্ভাবনা কম। তবে খুলনা উপকূল এর সবচেয়ে নিকটবর্তী হওয়ায় সেখানে ঝুঁকি তুলনামূলক বেশি থাকতে পারে। দেশের সকল সমুদ্রবন্দরে ২নং দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত বহাল আছে যা পরবর্তী সময়ে প্রয়োজন অনুযায়ী বাড়ানো হতে পারে। আজ সকাল ৮টায় ঘূর্ণিঝড়টি মংলা‌ সমুদ্রবন্দর হতে প্রায় ৪৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। আমরা ঘূর্ণিঝড়ের গতিবিধির উপর নজর রাখছি। সুতরাং কোন পরিবর্তন হলে আপনাদের জানিয়ে দেয়া হবে সময়মতো।

ঘূর্ণিঝড়টি উত্তর বঙ্গোপসাগরের কাছে চলে আসায় উপকূলীয় এলাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ঝড়ো বাতাসসহ বৃষ্টি হতে পারে দিনে ও রাতের যেকোন সময়। এছাড়া সমুদ্র উত্তাল থাকায় ও আগামিকাল পূর্ণিমা ও চন্দ্রগ্রহণের প্রভাবে উপকূলীয় এলাকার কোথাও কোথাও স্বাভাবিকের চেয়ে ৫-৭ ফুট উঁচু জলোচ্ছাস ও জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হতে পারে। কাজেই উক্ত এলাকাসমূহে বসবাসরত সকলকে সাবধানে থাকতে বলা হলো।

পূর্বাভাস অনুযায়ী গতকাল রাতে দেশের বেশিরভাগ স্থানেই ঝড়ো বাতাস আর বজ্রবৃষ্টিতে কমেছে তীব্র ভ্যাপসা গরম। আজ থেকে আগামি ২/৩ দিনে সারাদেশের দিন ও রাতের তাপমাত্রা আরো কিছুটা কমতে পারে ইনশাআল্লাহ।

চিত্রে ঘূর্ণিঝড়ের বর্তমান অবস্থান দেখুন।

 

এই বিভাগের আরও খবর