পরীমনির মামলায় বোট ক্লাবের নিরাপত্তা কর্মীদের জিজ্ঞাসাবাদ

চিত্রনায়িকা পরীমনির করা মামলার তদন্ত শুরু করেছে সাভার থানার পুলিশ। ঘটনার দিন ঢাকা বোট ক্লাবে কী ঘটেছিল, তা জানতে ক্লাবের নিরাপত্তাকর্মীসহ সংশ্লিষ্টদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

২৫

ঢাকা বোট ক্লাবে ৮ জুন রাতে ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে অভিযোগে মামলা করেছেন পরীমনি। মামলায় নাসির উদ্দিন মাহমুদ, তুহিন সিদ্দিকী ওরফে অমি ছাড়াও অজ্ঞাতনামা চারজনকে আসামি করা হয়েছে। এই দুজনসহ পাঁচজন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) করা মাদক মামলায় রিমান্ডে আছেন। পরীমনির মামলায় তাঁদের রিমান্ডে নিতে ইতিমধ্যে আদালতে আবেদন করা হয়েছে।

তদন্তসংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলেন, সিসিটিভি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, পরীমনি ৮ জুন দিবাগত রাত ১২টা ২২ মিনিটে বোট ক্লাবে ঢোকেন। ক্লাবের ভেতরে চিৎকার–চেঁচামেচি, মারামারি ও ভাঙচুরের দৃশ্য দেখা যায়। ১ ঘণ্টা ৩৭ মিনিট পর বোট ক্লাব থেকে পরীমনিকে বের করে গাড়িতে তুলে দেওয়া হয়।

মামলার তদন্ত তদারক কর্মকর্তা ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার বলেন, তদন্ত কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ঘটনার সময় উপস্থিত সংশ্লিষ্টদের সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে।

এদিকে পরীমনি গতকাল রাতে তাঁর বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। রাতে যোগাযোগ করা হলে পরীমনি প্রথম আলোকে বলেন, তিনি জ্বরে আক্রান্ত।

অমির বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা

অমিসহ পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে দক্ষিণখান থানায় মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে মামলা করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার আবদুল কাদির নামের এক ব্যক্তি বাদী হয়ে ওই মামলা করেন।

পুলিশের উত্তরা বিভাগের উপকমিশনার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, গতকাল মামলার তদন্তভার সিআইডিতে ন্যস্ত করা হয়েছে।

সুত্র: প্র/আ

এই বিভাগের আরও খবর