ব্যাঙ রক্ষা দিবস

৬৭

ব্যাঙ গ্রামবাংলার মানুষের যাপিত জীবন এবং পরিবেশ-প্রতিবেশের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। বর্ষায় বৃষ্টির মেঘমল্লারের সঙ্গে ব্যাঙের বিরামহীন ‘ঘ্যাঙর ঘ্যাঙ’ কিংবা সন্ধ্যা নামলেই ধানখেতের অল্প পানিতে কোলাব্যাঙের ডাক—গ্রামবাংলায় এখনো পরিচিত এক অনুষঙ্গ। ব্যাঙ বাঙালির সামাজিক জীবন, শিল্পসাহিত্যে, প্রবাদ-প্রবচনে যেমন এসেছে তেমনি নিয়মিতই আসে দৈনন্দিন কথাবার্তায়, উদাহরণ-উপমায়। ব্যাঙের সর্দি, কূপমণ্ডূক, ব্যাঙের ছাতা—শব্দবন্ধগুলো অহরহ ব্যবহার করি আমরা। ছোটবেলায় স্কুলের ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় হাঁটু মুড়ে বসে দুই হাত হাঁটুর নিচ দিয়ে কান ধরে ব্যাঙের লাফ দিয়েছেন নিশ্চয়ই অনেকেই।

এই যে ব্যাঙ বিষয়ে এত বাহারি বাক্যব্যয়, কারণটা বুঝতে পারছেন? প্রতিবছর এপ্রিল মাসের শেষ শনিবার পালিত হয় ‘বিশ্ব ব্যাঙ রক্ষা দিবস’ হিসেবে। সেই হিসাবে আজ শনিবার ২৫ এপ্রিল সেই দিবসটি।

ব্যাঙ নিয়ে ভালো ভালো কথাই তো বলা হলো। কিন্তু আদতে কি প্রাণীটি ভালো আছে আজকাল? ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচারের (আইইউসিএন) ২০১৫ সালের সমীক্ষা অনুযায়ী, বাংলাদেশে ৪৯ প্রজাতির ব্যাঙ রয়েছে। সমীক্ষাটির রেড লিস্ট বা লাল তালিকা অনুসারে, এর মধ্যে ১০ প্রজাতির ব্যাঙ বিপন্ন অবস্থায় রয়েছে। পরিবেশবন্ধু ব্যাঙের বিলোপ নয় বরং ব্যাঙ রক্ষায় অবদান রাখার প্রত্যয় হোক এবারের ব্যাঙ দিবসে।

এই বিভাগের আরও খবর